You are currently viewing উইন্ডোজ হোস্টিং এর সুবিধা, অসুবিধা

উইন্ডোজ হোস্টিং এর সুবিধা

সহজ ব্যবহার

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম একটি সহজ এবং নিউবি ইউজার ফ্রেন্ডলী। আমাদের দেশে প্রায় ৯০% এর উপরে পার্সোনাল কম্পিউটারে উইন্ডোজ ব্যবহার করা হয়। এ কারণে আমরা উইন্ডোজ নির্ভর অপারেটিং সিস্টেমের সাথে সবথেকে বেশি পরিচিত। তাই কোন ধরণের Advance টেকনিক্যাল নলেজ ছাড়াই উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম অপারেট করা যায়। 

মোটকথা আমরা সবাই উইন্ডোজ ওএস এর সাথে পরিচিত। এই কারণে Windows Hosting ম্যানেজ করা আমাদের জন্য সবথেকে বেশি সহজ হয়ে থাকে। কারণ উইন্ডোজ হোস্টিং গুলো উইন্ডোজ ওএস দ্বারা পরিচালিত হয়। 

উইন্ডোজ সার্ভিস সাপোর্ট

আমরা ASP.NET, .NET framework, MS Mail Exchange ইত্যাদি সার্ভিস গুলোর সাথে পরিচিত। এসব সার্ভিসের কিছু রেস্ট্রিকশন আছে আর তা হলো এগুলো লিনাক্স সার্ভারে ইউজ করা যায় না। কারণ এগুলো উইন্ডোজ নির্ভর সার্ভিস। আজকাল অনেক ওয়েবসাইট ডট নেট টেকনোলজি দিয়ে তৈরি। লিনাক্স সার্ভারে এই ফাইল গুলো রান হয়না যার ফলে সার্ভার নেওয়ার উদ্দেশ্য বিফল হয়ে যায়। 

কিন্তু উইন্ডোজ সার্ভারে এসকল ফাইল কোন ধরণের ঝামেলা ছাড়াই চলে। অতএব আপনার যদি কোন মেইল সার্ভার (MS Mail Exchange) সার্ভিস সেটআপ করার প্রয়োজন পড়ে তাহলে উইন্ডোজ সার্ভার আপনার একমাত্র অপশন। অন্যান্য Windows OS নির্ভর সার্ভিস ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়লে আপনাকে উইন্ডোজ সার্ভার ইউজ করতে হবে এর কোন বিকল্প নেই। 

কম্প্যাটিবিলিটি

অনেক আগে থেকেই ডেভেলপাররা অনেক বড় আকারে উইন্ডোজ ওএস কম্প্যাটিবল অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করে আসছে। যেমন অনেক সফটওয়্যার এবং অ্যাপ্লিকেশন ডাটাবেস হিসেবে SQL ইউজ করে। অতএব SQL কম্প্যাটিবিলিটি শুধু উইন্ডোজ এর কাছেই আছে। 

অর্থাৎ Windows Hosting না হলে MS SQL ডাটাবেস কম্প্যাটিবিলিটি নিয়ে সমস্যায় পড়তে হবে। এধরনের আরও অনেক টেকনোলজি আছে যা পরিচালিত হতে হলে উইন্ডোজ এর সাথে কম্প্যাটিবল হতে হবে। 

ডেভেলপমেন্ট এনভায়রনমেন্ট 

মান্ধাতার আমল থেকে এখন পর্যন্ত উইন্ডোজ ডেভেলপমেন্ট এর জন্য একটি আদর্শ জায়গা। এখানে MS SQL, .ASPX এবং MVC ইত্যাদি ডেভেলপমেন্ট এর জন্য উইন্ডোজ সার্ভার সব থেকে উপযুক্ত প্লাটফর্ম। তবে আবার অপরদিকে PHP, MySQL ইত্যাদি ডেভেলপমেন্ট টুলের জন্য লিনাক্স বেশি উপযুক্ত। 

ডেভেলপমেন্ট করার জন্য যে ধরনের সফটওয়্যার বা টুল প্রয়োজন পড়ে তার প্রায় সবগুলেই উইন্ডোজে সাপোর্ট করে। ফ্রি এবং পেইড সব মিলিয়ে উইন্ডোজ একটি টুলের কারখানা। এ কারণে ডেভেলপমেন্ট নির্ভর প্রোজেক্ট করতে চাইলে উইন্ডোজ সার্ভার সবথেকে বেস্ট না হলেও একটি ভালো অপশন হতে পারে। 

দাম নাগালের মধ্যে

দামের দিক থেকে উইন্ডোজ সার্ভার নাগালের মধ্যেই। যদিও লিনাক্স শেয়ারর্ড হোস্টিং এর থেকে উইন্ডোজ শেয়ারড হোস্টিং এর দাম একটু বেশি।লিনাক্সে শেয়ারর্ড হোস্টিং এর থেকে Windows Hosting এর এই দাম বেশি হবার প্রধান কারণ হলো, লিনাক্স Open Soruce যার জন্য লাইসেন্স কিনতে হয়না এখানে Hosting Provider দের খরচ কম যায়। কিন্তু অপরদিকে Windows এর লাইসেন্স কিনতে হয় যা কারণে খরচ বেশি পড়ে যায়।

উইন্ডোজ হোস্টিং এর অসুবিধা কি?

Windows Hosting এর যেমন কিছু গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা আছে তেমনি এর কিছু অসুবিধাও আছে। চলুন সেগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক। 

স্ট্যাবিলিটি

আমরা যারা উইন্ডোজ ব্যবহার করি তারা জানি এটি কত আনস্ট্যাবল একটি অপারেটিং সিস্টেম। লিনাক্স OS যেখানে কোন ধরণের রিস্টার্ট ছাড়াই বছরের পর বছর চলতে পারে উইন্ডোজ সেখানে অল্পতেই হাঁপিয়ে যায়। উইন্ডোজ ১০ আসার পর এর স্ট্যাবিলিটি অনেক বেড়ে গেলেও বছরের পর বছর চলার মত স্ট্যাবল এখনো হয়ে ওঠেনি। 

তাই উইন্ডোজ সার্ভার স্ট্যাবল ভাবে কাজ করে না। এমন অনেক সময় আসে সার্ভার ক্রাশ করে যার কারণে ওয়েবসাইট অফলাইন হয়ে যায়। এতে পুরো সার্ভার আবার রিস্টার্ট দিতে হয়। যা অনেক বড় সমস্যার সৃষ্টি করে। 

সিকিউরিটি 

এখন পর্যন্ত যে সকল সার্ভার হ্যাকিং এর ঘটনা ঘটেছে তার মধ্যে Windows Server এর সংখ্যাই বেশি। কারণ সিকিউরিটির দিক দিয়ে উইন্ডোজ সার্ভার অনেক পিছিয়ে আছে। এটি একটি পেইড সার্ভিস হলেও এর মধ্যে ব্যাকডোর থেকে শুরু করে অনেক ধরণের সিকিউরিটি দূর্বলতা আছে।

উইন্ডোজ সার্ভারে ভাইরাস অ্যাটাক অনেক স্বাভাবিক একটি বিষয়। এছাড়া বর্তমান সময়ের আতঙ্ক র‍্যানসমওয়্যার অ্যাটাক শুধু উইন্ডোজ OS কে টার্গেট করে অপারেট হয়। আর বিশ্বে সবথেকে বেশি ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার শুধু উইন্ডোজ এর জন্যই তৈরি করা হয়। যে কারণে সিকিউরিটির দিক দিয়ে উইন্ডোজ সার্ভার ইউজ না করাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।  

পারফরমেন্স 

Windows Hosting সার্ভার গুলো ফাস্ট ওয়েবসাইট এর জন্য উপযুক্ত নয়। কারণ উইন্ডোজ সার্ভারের পারফরমেন্স অনেক দূর্বল। একই সাথে অনেক গুলো রিসোর্স হান্ডেল করা উইন্ডোজ সার্ভার জন্য সমস্যার সৃষ্টি করে। আমরা নিত্যদিন যে উইন্ডোজ OS ব্যবহার করি তার সিপিইউ প্রসেস হ্যান্ডেল করার ক্ষমতা লিনাক্সের থেকে কম। এই কারণে পারফরমেন্স এর দিয়ে উইন্ডোজ সার্ভার অনেক পিছিয়ে আছে। 

কম্প্যাটিবিলিটি ইস্যু 

যদিও বেশ কিছু সার্ভিস এবং অ্যাপ্লিকেশন উইন্ডোজ সার্ভার ছাড়া অপারেট হয়না কিন্তু সে সংখ্যা খুবই কম। আপনি আপনার ওয়েব সার্ভিসে যদি PERL বা CGI নির্ভর টেকনোলজি ইউজ করেন তাহলে তা উইন্ডোজ সার্ভারে চলবে না। এরকম আরো অনেক ধরণের কম্প্যাটিবিলিটি ইস্যু আছে যা উইন্ডোজ সার্ভারের অসুবিধার মধ্যে অন্যতম। 

অতিরিক্ত রিসোর্স খরচ 

সামান্য একটু কাজের জন্য উইন্ডোজ OS এর অতিরিক্ত রিসোর্স ইউজ করার দূর্নাম অনেক আগে থেকেই আছে। একটি সার্ভার অপারেট করতে হলে আমাদের এর রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট সঠিকভাবে করতে হয়। কারণ কোন কারণে ওয়েবসাইটে অতিরিক্ত ভিজিটর বা সার্ভার রিকোয়েস্ট আসলে তা ক্রাশ করার সম্ভাবনা থাকে। 

উইন্ডোজ সার্ভার হলে এই কাজ আরও বেশি কষ্টের হয়ে থাকে। কারণ উইন্ডোজ সার্ভার এমনিতেই অতিরিক্ত রিসোর্স ইউজ করে। তার উপর যদি সাইটে সার্ভার রিকোয়েস্ট বেশি আসে তাহলে পুরো সার্ভার ক্রাশ করা অস্বাভাবিক বিষয় নয়। 

সার্ভার মেইনটেনেন্স খরচ 

Windows OS একটি পেইড অপারেটিং সিস্টেম। এর সার্ভার ভার্সনের দাম সাধারণ উইন্ডোজ এর থেকেও অনেক বেশি। আর সার্ভার হোল্ডাররা এখানে যে ইনভেস্ট করে তা বিবেচনা করলে উইন্ডোজ সার্ভার মেইনটেইন করা অনেক ব্যয়বহুল। 

লিমিটেড অ্যাপ্লিকেশন সাপোর্ট 

লিনাক্স সার্ভারের তুলনায় উইন্ডোজ সার্ভারের অ্যাপ্লিকেশন কম্প্যাটিবিলিটি অনেক কম হওয়ার কারণে বেশি অ্যাপ্লিকেশন রান করা যায় না। তাছাড়া Apache উইন্ডোজ সার্ভার থেকে লিনাক্স সার্ভারে ভালো পারফর্ম করে। এটি উইন্ডোজ সার্ভারের অনেক বড় একটি ডিস-অ্যাডভান্টেজ। 

কেন উইন্ডোজ হোস্টিং ব্যবহার করবেন?

উপরের বর্ণনায় Windows Hosting নিয়ে আলোচনায় এর সুবিধা অসুবিধা সব কিছু আলোচনা করা হয়েছে। সেগুলো বিবেচনা করলে আমরা যা পাই তা হলো উইন্ডোজ সার্ভার ইউজ করার জন্য স্পেসিফিক কারণ আছে। যেমন যেই সার্ভিস উইন্ডোজ ওএস নির্ভর তা ইউজ করতে হলে আমাদের উইন্ডোজ হোস্টিং ইউজ করতে হবে। 

ASP.NET টেকনোলজি দিয়ে তৈরি ওয়েবসাইট হোস্ট করার জন্য উইন্ডোজ সার্ভার প্রয়োজন পড়বে, MS Mail Exchange দিয়ে মেইল সার্ভার তৈরি এবং পরিচালনা করার জন্য উইন্ডোজ সার্ভার লাগবে। তাছাড়া Remote Desktop PC ইউজ করার জন্য উইন্ডোজ সার্ভার ভালো হবে কারণ এর সাথে আমরা সবাই পরিচিত থাকি। 

মূলত উইন্ডোজ সার্ভার ব্যবহার করার কারণ গুলো খুব অল্প। তবে যতদিন আমাদের মাইক্রোসফট এর বিভিন্ন সার্ভিস ইউজ করতে হবে ততদিন ডেডিকেটেড উইন্ডোজ হোস্টিং আমাদের ইউজ করতেই হবে। 

Leave a Comment